আর্থিং কি? কেন করা হয়? পদ্ধতি কি?

বিদ্যুৎ থেকে অতিরিক্ত সুরক্ষার জন্য আর্থিং কি এবং ব্যবহারবিধি জানতে হয়। আমাদের বিভিন্ন স্থাপনায় অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনা যেমন হাই ভোল্টেজ বা আর্থ লিকেজের মত সমস্যা দেখা দিতে পারে। এগুলো হলে বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি যেমন টিভি, ফ্রিজ, ফ্যান, লাইনট ইত্যাদি নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

মূলত এ ধরনের পরিস্থীতিতে বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি এবং এর ব্যবহারকারীকে সুরক্ষা দিতে বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতির মেটাল বা বহিরাবরণ থেকে কারেন্টকে কোন পরিবাহী দ্বারা মাটিতে প্রেরণ করা হয়। বিদ্যুৎকে মাটিতে প্রেরণের এ প্রক্রিয়াকেই আর্থিং বলে।

ইলেকট্রিক ইঞ্জিনিয়ারগণ আর্থিংকে অনেক সময় গ্রাউন্ডিং বলে থাকেন। কারণ আর্থিংয়ের মাধ্যমে বিদ্যুৎ মাটিতে পাঠানো সম্ভব হয়। কোন কারণে বৈদ্যুতিক সংযোগে লিকেজ কারেন্ট হলে আর্থিং সেই লিকেজ কারেন্টকে কোন প্রকার বিপদ না ঘটিয়ে তারের মাধ্যমে সহজে মাটিতে চলে যেতে সাহায্য করে।

আর্থিং কত প্রকার?

ব্যবহারের ওপর ভিত্তি করে আর্থিং ব্যবস্থা সাধারণত দুই প্রকারের হয়ে থাকে। যেমন:

  • সিস্টেম আর্থিং
  • ইকুইপমেন্ট আর্থিং

সিস্টেম আর্থিং সাধারণত ট্রান্সফরমার ও জেনারেটরের নিউট্রাল পয়েন্টে করা হয়। অপরদিকে আমাদের বাসা-বাড়ির বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি রক্ষা করতে ইকুইপমেন্ট আর্থিং ব্যবস্থা ব্যবহার করা হয়।

আর্থিং এর প্রয়োজনীয়তা কি?

বিদ্যুতিক বর্তনীতে কোন প্রকার ত্রুটি হলে আর্থিং লিকেজ কারেন্টকে ত্রুটিপূর্ণ সার্কিট থেকে বিচ্ছিন্ন করে। এতে করে বড় ধরনের কোন দুর্ঘটনার সম্ভাবনা থেকে বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি এবং ব্যাবহারকারি নিজে বেঁচে যায়। তাই বলা চলে নিরাপদ বিদ্যুৎ ব্যবহারে আর্থিং এর প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম।

এছাড়াও আর্থিং ভোল্টেজ সিস্টেমের যেকোন অংশ মাটির তুলনায় যেন নির্দিষ্ট থাকে তার ব্যবস্থা করে। পাশাপাশি সিস্টেমে সমস্যার কারণে যন্ত্রপাতির ভোল্টেজ যেন মাটির তুলনায় বিপজ্জনক পর্যায় না যায় তা নিশ্চিত করার জন্য আর্থিং বিশেষ ভূমিকা পালন করে। বিশেষ করে আর্থিং হাই ভোল্টেজ থেকে ইলেকট্রিক্যাল ইকুইপমেন্টগুলোকে সুরক্ষিত রাখে।

কখনো কখনো ট্রান্সফরমারের নিউট্রাল হিসাবেও আর্থিং ব্যবহার করা হয়। তাছাড়া লাইনের শর্ট সার্কিট এবং বজ্রপাতের মত প্রাকৃতিক দুর্ঘটনা থেকে জানমাল সুরক্ষিত রাখতে আর্থিং ব্যবহার করা হয়। তাই আধুনিক বিদ্যুৎ সংযোগ এবং এর নিরাপদ ব্যবহারের জন্য আর্থিং বা গ্রাউন্ডিং একটি অপরিহার্য অংশ।

নিউট্রাল এবং আর্থিং এর মধ্যে পার্থক্য কি?

আর্থিং সরাসরি মাটির সাথে যুক্ত থাকে। ফলে অতিরিক্ত বিদ্যুৎ চাপ আর্থিংয়ের মাধ্যমে সরাসরি মাটিতে প্রবেশ করে। অপরদিকে নিউট্রাল লাইন মাটিতে নয়, সরাসরি পাওয়ার স্টেশন বা ট্রান্সফরমারে ফেরত যায়।

স্বাভাবিক অবস্থায় নিউট্রালে বিদ্যুৎ প্রবাহিত হয় এবং তা অপেক্ষাকৃত ছোট পথ প্রদান করে। পক্ষান্তরে আর্থিং বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি ও এর ব্যবহারকারীকে নিরাপত্তা প্রদান করে। অর্থাৎ বিপজ্জনক পরিস্থিতীতে শর্ট সার্কিটের মাধ্যমে বিদ্যুৎ দ্রুত মাটিতে প্রেরিত হয়।

তবে অনেকের মাঝেই প্রশ্ন থাকে যে, নিউট্রাল লাইন দিয়ে যদি বৈদ্যুতিক কারেন্ট ফেরৎ যায় তাহলে কারেন্ট শক করে না কেন? এখানে একটি বিষয় লক্ষ্য করতে হবে; বৈদ্যুতিক শকের মাত্রা নির্ভর করে বৈদ্যুতিক চাপ অর্থাৎ ভোল্টেজের উপর। কিন্তু নিউট্রাল লাইন ভোল্টেজ শূন্য থাকে এবং বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আর্থের সাথে গ্রাউন্ডিং করা হয়। তাই এতে কোন বৈদ্যুতিক চাপ না থাকায় আমাদের শক লাগে না।

আর্থিং কোথায় প্রয়োজন হয়?

  • যে কোন ইলেকট্রিক্যাল ইকুইপমেন্টে (যন্ত্রাংশ)।
  • ওভারহেড ট্রান্সমিশন লাইনে।
  • ট্রান্সফরমারের কানেকশন করতে।
  • জেনারেটরের নিউট্রাল পয়েন্ট হিসাবে।
  • বাড়ি, অফিস বা ফ্যাক্টরিকে সুরক্ষিত রাখতে।

আর্থিং করার পদ্ধতি

প্রয়োগভেদে আর্থিং করার নিয়ম আলাদা আলাদা হয়। সাধারণত বাড়িতে আর্থিং করা হয় মাটিতে রড ঢুকিয়ে। মেইন ডিস্ট্রিবিউশন প্যানেলের নিউট্রালের সাথে রডের উপরের প্রান্তে তার (Cable) ভালোভাবে যুক্ত করে আর্থিং করা হয়।

সাধারণত বালু যুক্ত মাটি, শুকনো মাটি, পাথরে মাটিতে পাঁচ ফুটের বেশি গর্ত খুঁড়ে সেখানে পানি এবং লবণের মিশ্রণে তৈরি করে দিতে হয়। এরপর ধাতুর প্লেট রেখে এর সাথে আর্থিংয়ের তার যুক্ত করে বাইরে এনে মেইন ডিস্ট্রিবিউশন বোর্ডের নিউট্রালের সাথে কানেক্ট করতে হয়।

সাধারণত চিকন জিআই পাইপ (Galvanized Iron Pipes) দিয়ে আর্থিং করা হয়ে থাকে। যেসব ইলেকট্রিক যন্ত্রপাতির বাইরের আবরণ ধাতুর তৈরি সেসব যন্ত্রপাতি বডি আর্থিং করতে হয়। সাধারণত বাসা, বাড়ি ও অফিসের জন্য ৫ ওহমের নিচে আর্থ রেজিস্ট্যন্স হলেই চলে। কিন্তু সাব স্টেশনের জন্য ১ ওহমের নিচে থাকা আবশ্যক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *