ইনস্টাগ্রাম মার্কেটিং : হ্যাশট্যাগ ব্যবহারের ফাইনাল গাইডলাইন

ইনস্টাগ্রাম মার্কেটিং

এখন ইন্টারনেটের যুগ। আর তাই এ যুগের সাথে তাল মিলিয়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে আরো পূর্ণতা দিতে মানুষ ঝুঁকে পরছে অনলাইন প্রচরণার দিকে। ফলে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর গুরুত্ব ক্রমান্বয়ে বেড়েই চলছে। বর্তমান সময়ে সবচেয়ে জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর মধ্যে ইনস্টাগ্রাম অন্যতম। সারাবিশ্বে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের মধ্যে প্রায় এক বিলিয়ন মানুষ ফটো শেয়ারিং এই প্লাটফর্মটি ব্যবহার করেন।

জনপ্রিয়তা, কার্যকারীতা এবং প্রয়োজনীয়তার ওপর ভিত্তি করে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর জন্য ইনস্টাগ্রামের চাহিদা এখন অনেক বেশি। আর এজন্যই অনেক ফ্রিল্যান্সার ইনস্টাগ্রাম মার্কেটিংকে পুঁজি করে নিজের ক্যারিয়ার দাঁড় করানো কথা ভাবছেন। কিন্তু চিন্তার বিষয় হচ্ছে ইনস্টাগ্রাম মার্কেটিং আসলে ঠিক কতটা সহজ?

ইনস্টাগ্রাম মার্কেটিং সত্যিকার অর্থেই অনেক সহজ। যদি আপনি ইনস্টাগ্রামের প্রতিটি ফিচার সঠিকভাবে ব্যবহার করতে পারেন, তাহলে আপনার এই প্লাটফরমটিতে মার্কেটিং করে সফলতা অর্জন করার সম্ভবনা শতভাগ নিশ্চিত। আজ আমরা সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর এই ব্লগটিতে ইনস্টাগ্রাম মার্কেটিং এর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়ে হ্যাশট্যাগের ব্যবহার ও গুরুত্ব সম্পর্কে জানবো।

এই লিংক থেকে জেনে নিন ইনস্টাগ্রাম মার্কেটিং এর ৮ টি পাওয়ারফুল টিপস

ইনস্টাগ্রাম মার্কেটিং এর জন্য হ্যাশট্যাগের সফল ব্যবহার অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি জিনিস। ইনস্টাগ্রামে করা ক্যাম্পেইনগুলো দৃশ্যমান (Visible) করতে এবং আপনার পোস্টকে টার্গেট অডিয়েন্সের কাছে পৌঁছে দিতে হ্যাশট্যাগ অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ইনস্টাগ্রামে কোন পোস্টকে র‍্যাঙ্ক করাতে চাইলে হ্যাশট্যাগের যথাযথ ব্যবহার ছাড়া তা প্রায় অসম্ভব।

আপনি হয়তো জেনে অবাক হবেন যে, যে সকল ইন্সটাগ্রাম পোস্টে অন্তত একটি হ‌্যাশট‌্যাগ ব্যবহার করা হয়, তা প্রায় ১২.৬% এনগেজমেন্ট বেশি পায় ওই সকল পোস্টের থেকে, যাতে কোন প্রকার হ‌্যা ট‌্যাগই ব্যবহার করা হয় না। অনলাইন জগতে একটি কথা প্রচলিত আছে যে, Hashtags are powerful. অর্থাৎ, হ‌্যাশট‌্যাগ শক্তিশালী। আসলেই কিন্তু ঠিক তাই।

একটি পারফেক্ট হ‌্যাশট‌্যাগ আপনার টার্গেট করা অডিএন্সকে খুঁজে বের করে এবং তাদের নিউজফীডে আপনার প্রোডাক্টের প্রচারণা পৌঁছে দেয়। এটা আপনার ফলোয়ারদের দৃষ্টিকেও আকর্ষণ করে। যার ফলে আপনার প্রতিটি পোস্টের এনগেজমেন্ট (জন সক্রিয়তা) পূর্বের থেকে আরো বৃদ্ধি পায়। আপনার ব্রান্ড বা কোম্পানির প্রচারণা সবদিকে ছড়িয়ে যায়। ফলশ্রুতিতে প্রোডাক্টের বিক্রি এবং জনপ্রিয়তা উভয়ই বাড়ে।

কেন হ্যাশট্যাগের ব্যবহার খুবই গুরুত্বপূর্ণ?

হ্যাশট্যাগ হচ্ছে ইন্সটাগ্রামের অপরিহার্য একটি সর্টিং প্রসেস। ইন্সটাগ্রামে প্রতিদিন প্রায় ৯০ মিলিয়ন ফটো আপলোড করা হয়। সুতরাং সঠিক কনটেন্টটি সঠিক লোকের কাছে পৌঁছে দেয়াটা ইন্সটাগ্রামের জন্য এটা খুবই কঠিন একটি বিষয়। আর এ জন্যই ইন্সটাগ্রাম তাদের সর্টিং প্রসেস ব্যবহার করে। যাতে করে হ্যাশট্যাগগুলো আপনার পোস্টটি শুধুমাত্র তাদের কাছেই পৌঁছে দেয়, যারা ওই পোস্টটি দেখতে আগ্রহী।

মূলত, হ্যাশট্যাগগুলো আপনার পোস্টগুলোকে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করার ভাল একটি উপায়। তারা আপনার প্রয়োজনীয় দর্শকদের আপনাকে খুঁজে পেতে সহায়তা করে। আর এই পারফেক্ট হ্যাশট্যাগ ব্যবহারের ফলে অডিয়েন্সের কাছে পৌঁছে যাওয়া পোস্টে অডিয়েন্সের সক্রিয় হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে। কারণ, আপনি সে ধরনের পোস্টই করেছেন, যা তারা পছন্দ করে।

২০১৮ সালে ইনস্টাগ্রামের র্শীর্ষ ১০ টি হ‌্যাশট্যাগ:

#love

#instagood

#style

#dogstagram

#me

#fashion

#cute

#tbt

#foodporn

#photooftheday

#instamood

#follow

#iphonesia

#food

#motivation

ইনস্টাগ্রামে যে ট্যাগগুলো সবসময়ই জনপ্রিয় এবং প্রচলিত:

#life

#beautiful

#likeforlike

#travel

#igers

#photography

#happy

#fitness

#repost

#instadaily

#bestoftheday

#followforfollow

উপরে আমরা যে হ্যাশট্যাগগুলো উল্লেখ করেছি, সেগুলো সব থেকে জনপ্রিয় হ্যাশট্যাগ যা কোন পোস্টকে র‍্যাঙ্ক করানোর জন্য ইনস্টাগ্রাম ইউজাররা ব্যবহার করে থাকেন। সুতরাং, আপনি যদি ইনস্টাগ্রাম মার্কেটিং এ ক্যারিয়ার গড়তে চান, তাহলে এই হ্যাশট্যাগের ব্যাপারে আপনাকে অনেক যত্নশীল হতে হবে। আপনাকে এমন স্পেশালী কিছু ট্যাগ তৈরি করতে হবে যা আপনার পোস্টকেও র‍্যাঙ্ক দিতে সক্ষম। তাহলে চলুন জেনে নেই কীভাবে সঠিক ইনস্টাগ্রাম হ্যাশট্যাগ তৈরি করবেন।

আপনার হ্যাশট্যাগগুলো সুন্দরভাবে সাজান:

একটি পারফেক্ট হ্যাশট্যাগ সিস্টেম তৈরি করতে আপনি এক্সেল বা ইনস্টাগ্রাম এনানিলিটক্স টুলস ব্যবহার করতে পারেন। আপনি যদি একটি এক্সেল শীট ব্যবহার করেন তবে কোন হ্যাশট্যাগগুলি ব্যবহার করবেন, কত ঘন ঘন ব্যবহার করবেন এবং কোনটি আপনার সর্বাধিক জনপ্রিয় পোস্টগুলির সাথে সম্পর্কযুক্ত তা ম্যানুয়ালি ট্র্যাক করে রাখতে হবে।

এর ফলে সময়ের সাথে সাথে, আপনি নির্দিষ্ট হ্যাশট্যাগগুলি এবং আপনার সর্বাধিক জনপ্রিয় পোস্টগুলির মধ্যে সম্পর্ক দেখতে পাবেন এবং কোন ব্র্যান্ডের জন্য কোন হ্যাশট্যাগগুলি সবচেয়ে ভাল কাজ করে তা আপনাকে সিদ্ধান্ত নিতে সহায়তা করবে।

আপনি কি অনলাইন শপিংএ স্বাচ্ছন্দবোধ করেন? তাহলে অনলাইন কেনাকাটায় ১৩ টি বিষয়ে সতর্ক হোন।

অল্প বাজেটযুক্ত ছোট ব্যবসার জন্য এক্সেল শীট দিয়ে শুরু করাই সেরা উপায়। ক্রমান্বয়ে আপনার বাজেট যখন আরো বাড়বে তখন আপনি এডভান্স কোন ডেটা ট্র্যাক টুলল ব্যবহার করতে পারেন। কারণ, যদি আপনি দিনে তিনবার পোস্ট করেন এবং প্রতি পোস্টে প্রায় ২০ টি হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করেন তখন একটি ম্যানুয়াল সিস্টেম খুব ভালো কাজ নাও করতে পারে।

প্রোডাক্টের জন্য কার্যকরী হ্যাশট্যাগটি খুঁজে বের করুন:

সর্বাধিক জনপ্রিয় ব্র্যান্ডগুলির মধ্যে প্রায় ৯১% তাদের প্রতিটি পোস্টে সাতটি বা তার চেয়ে কম হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে থাকে। সুতরাং প্রচুর পরিমাণে হ্যাশট্যাগ ব্যবহার না করে আপনাকে সেই ম্যাজিক হ্যাশট্যাগটি খুঁজে বের করতে হবে, যা আপনার প্রোডাক্টকে র‍্যাঙ্ক দিতে সক্ষম।

এটা অল্পদিনে আপনি খুঁজে বের করতে পারবেন না যে কতগুলি বা কোন হ্যাশট্যাগগুলো আপনার পক্ষে সবচেয়ে ভাল কাজ করে।। ম্যাজিক হ্যাশট্যাগটি খুঁজে বের করতে বেশ কয়েক মাস সময় লাগবে। সুতরাং এই সময়টিতে আপনার ব্যবহার করা প্রতিটি হ্যাশট্যাগ সূক্ষ্মভাবে পর্যবেক্ষণ করুন। এতে করে আপনি এমন কিছু হ্যাশট্যাগ দেখতে পাবেন, যেগুলো আপনার প্রোডাক্টকে এনগেজমেন্ট এনে দিচ্ছে।

ছোট হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করুন:

স্পেশাল এবং ছোট-ভলিউমের হ্যাশট্যাগগুলি আপনার ব্র্যান্ডের জন্য ভালো। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ছোট হ্যাশট্যাগ এসইও রিলেটেড হয়ে থাকে। ধরুন আপনি পোশাক জাতীয় নিশের ওপর কাজ করছেন। আর এক্ষেত্রে আপনি আপনার শার্ট সেল করার জন্য যদি #bangladeshshirt লিখেন, তাহলে সেটা অনেক বড় হয়ে যায়। অথচ একই হ্যাশট্যাগ আপনি #bdshirt এভাবেও লিখতে পারেন।

অপরদিকে একজন ইউজারও সবসময় চায় অল্প কিছু লিখে সার্চ দিয়ে তার প্রয়োজনীয় জিনিসটি দেখতে। খুব কম ইউজারই আছে, যার সার্চ বক্সে বিস্তর লিখতে পছন্দ করেন। সুতরাং আকারে ছোট হ্যাশট্যাগের সাথে ইউজারদের এনগেজমেন্ট বেশি থাকে।

অন্যদের হ্যাশট্যাগ নিয়ে রিসার্চ করুন:

ভালো এবং পারফেক্ট হ্যাশট্যাগ জেনারেট করার একটি সহজ উপায় হল আপনার ফলোয়ার বা প্রতিযোগীদের একটি তালিকা তৈরি করা এবং তারা কীভাবে তাদের নিজের ফটোতে হ্যাশট্যাগ করছে তা গবেষণা করা। আপনি যে নিশ নিয়ে কাজ করছেন, সেই একই নিশ নিয়ে অন্যান্য জনপ্রিয় ব্রান্ডগুলো কাজ করার ক্ষেত্রে কি হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করছে, তা পর্যবেক্ষণ করুন।

রিলেটেড হ্যাশট্যাগগুলি পরীক্ষা করুন:

আপনি যখন ইনস্টাগ্রামের সার্চ বারে একটি হ্যাশট্যাগ টাইপ করেন, ইনস্টাগ্রাম আপনাকে স্ক্রোল-ডাউন মেনুতে রিলেটেড হ্যাশট্যাগগুলি দেখায়। রিলেটেড হ্যাশট্যাগে ক্লিক করার পরে পরবর্তী পেজ ওই হ্যাশট্যাগগুলি সম্পর্কে আরো জানতে পারবেন। প্রয়োজনীয় এবং রিলেটেড হ্যাশট্যাগগুলি খুঁজে পাওয়ার জন্য এই তালিকা থেকে হ্যাশট্যাগগুলি সংগ্রহ করুন। এবং ব্যবহার করুন।

আপনার নিজের হ্যাশট্যাগ ফলো করুন:

ইনস্টাগ্রামে সফল মার্কেটিং এর আরেকটি কৌশল হচ্ছে আপনার নিজের হ্যাশট্যাগটি ফলো করা। ইনস্টাগ্রামে আপনি আপনার নিজের হ্যাশট্যাগটি অনুসরণ করুন, যাতে যে কেউ আপনার প্রোডাক্টের বিষয়ে কথা বললে তাদের সাথে সংযুক্ত হতে পারেন এবং তাকে খুঁজে পেতে পারেন। যতক্ষণ না আপনার অ্যাকাউন্টটি প্রাইভেট না থাকে, লোকেরা আপনাকে হ্যাশট্যাগের মাধ্যমে খুঁজে পেতে সক্ষম হবে।

তাহলে আর দেরী কেন? এতক্ষণ যা যা শিখলেন সবকিছু মাথায় রেখে নতুন উদ্যমে নেমে পড়ুন ইনস্টাগ্রাম মার্কেটিং এ। প্রথমে বিষয়গুলো অনেক জটিল মনে হবে। কিন্তু যখন আপনি এগুলো অনুসরণ করে কয়েকবার প্রাকটিস করবেন, অনেক সহজ লাগবে। কোন সমস্যার সম্মুখীন হলে যুক্ত হতে পারেন আমাদের ফেসবুক গ্রুপে। এখানে আপনার সমস্যা সমাধানে আমরা আছি সবসময়।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll Up