৭ম শ্রেণি গার্হস্থ্য বিজ্ঞান ৮ম অধ্যায়: সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর

৭ম শ্রেণি গার্হস্থ্য বিজ্ঞান ৮ম অধ্যায় | আমরা জানি যে, খাদ্যকে ভাঙলে যে বিভিন্ন ধরনের জৈব রাসায়নিক উপাদান পাওয়া যায় তাদেরকে খাদ্য উপাদান বলে। এই উপাদানগুলো আমাদের শরীরে পুষ্টি সাধন করে। তাই এদেরকে পুষ্টি উপাদানও বলে।


৭ম শ্রেণি গার্হস্থ্য বিজ্ঞান ৮ম অধ্যায়

সৃজনশীল প্রশ্ন ১ : দশ বছরের চঞ্চল প্রকৃতির মেয়ে তানহা। দুই থেকে তিন দিন হলো তার জ্বর ভালো হয়েছে। কিন্তু সে পড়ালেখা করতে পারছে না। অধিকাংশ সময় শুয়ে কাটায়। তার মা তাকে দুধ, পুডিং, সেমাই, কলিজা ও ডাল জাতীয় খাবার বেশি করে খেতে দেন।

ক. পরিপাক কী?
খ. ডায়রিয়া হলে শরীরে ডিহাইড্রেশন হয় কেন?
গ. মা তানহাকে যে খাদ্যগুলো খেতে বলে সেগুলো কোন জাতীয় খাদ্য উপাদান?
ঘ. তানহার বর্তমান অবস্থা উত্তরণের জন্য মায়ের দেওয়া খাদ্যগুলো কতটুকু উপযোগী? বিশ্লেষণ করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ২ : সম্প্রতি বাংলাদেশ খাদ্য ও পুষ্টি ইনস্টিটিউট পরিচালিত একটি গবেষণায় দেখা গেছে, দেশের অধিকাংশ কিশোরী বিভিন্ন ধরনের পুষ্টি উপাদানের অভাবে ভুগছে, যা ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য হুমকিস্বরূপ। পাশ্চাত্য সংস্কৃতিকে নিজের মধ্যে ধারণ এবং পছন্দের শিল্পীর মতো দৈহিক কাঠামো লাভের আকাঙ্ক্ষাই এ পুষ্টিহীনতার মূল কারণ বলে গবেষকরা চিহ্নিত করেছেন। এছাড়া গবেষণায় আরও দেখা গেছে প্রায় ৮০ শতাংশ কিশোরী স্নেহ জাতীয় খাদ্য সম্পূর্ণরূপে ত্যাগ করেছে।

ক. প্রোটিনকে ভাঙলে প্রথমে কী পাওয়া যায়?
খ. লেশ মৌল খনিজ লবণ বলতে কী বোঝ?
গ. উদ্দীপকে উল্লিখিত সমস্যা সমাধানে করণীয় পদক্ষেপ ব্যাখ্যা করো।
ঘ. উদ্দীপকে উল্লিখিত সমস্যাটি কীভাবে জনস্বাস্থ্যকে প্রভাবিত করে বিস্তারিত আলোচনা করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৩ : খালেদা বেগম সারাদিন রোদে ইট ভাঙার কাজ করেন। তিনি প্রয়োজনের তুলনায় পানি কম খান। একদিন ইট ভাঙার সময় মাথা ঘুরে পড়ে গেলে সহকর্মীরা তাকে ধীরে ধীরে বসিয়ে পানি পান করালে তিনি কিছুটা সুস্থ বোধ করেন। এছাড়া খালেদা বেগম টক ফল, সবজি, সামুদ্রিক মাছ ইত্যাদি খেতে পছন্দ করেন না।

ক. ডিহাইড্রেশন কী?
খ. দেহে পানির চাহিদা সম্পর্কে ব্যাখ্যা করো।
গ. খালেদা বেগমের পড়ে যাওয়ার কারণ ব্যাখ্যা করো।
ঘ. খালেদা বেগমের স্বাস্থ্য ও কর্মক্ষমতা অটুট রাখতে কোন খাদ্য উপাদানগুলো জরুরি? বিশ্লেষণ করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৪ : মোরশেদা বেগম ক্লাসে পরিপাক ও শোষণ নিয়ে আলোচনার শুরুতে তার ছাত্রী মুনিয়াকে জিজ্ঞাসা করলেন সে নাশতায় কী খেয়েছে। সে উত্তর দিল ডাল ও রুটি। তার উত্তরের প্রেক্ষিতে তিনি পরিপাক ও শোষণ পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করলেন।

ক. উড়োজাহাজে ভ্রমণের ফলে কত লিটার পানি শরীর থেকে বের হয়ে যায়?
খ. পানির উৎসগুলো কী কী? ব্যাখ্যা করো।
গ. মুনিয়ার গ্রহণকৃত খাবার কীভাবে তার দেহে পুষ্টি সাধন করে ব্যাখ্যা করো।
ঘ. মোরশেদা বেগমের আলোচনার বিষয়টি রেখাচিত্রের মাধ্যমে বিশ্লেষণ করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৫ : সোমা সপ্তম শ্রেণিতে পড়ে। একদিন স্কুলে যাওয়ার সময় রাস্তার পাশে একটি হাত, পা ফোলা অপুষ্ট শিশুকে দেখে তার সম্পর্কে মাকে জিজ্ঞেস করলো। মা বললেন শিশুটি প্রোটিনের অভাবে ভুগছে। এদিকে সোমা তার খাদ্য তালিকা হতে ভাত, রুটি প্রায় বাদ দিয়েছিল। মা সোমাকে বললেন, আমাদের প্রতিদিন পরিমিত পরিমাণে কার্বোহাইড্রেট গ্রহণ করা প্রয়োজন ।

ক. পরিপাকতন্ত্র কাকে বলে?
খ. প্রোটিনের শ্রেণিবিভাগ লেখো।
গ. উল্লিখিত শিশুটি যে পুষ্টি উপাদানের অভাবে ভুগছে মানবদেহে তার অভাবজনিত অবস্থা ব্যাখ্যা করো।
ঘ. সোমার মায়ের পরামর্শটি মূল্যায়ন করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৬ : নাঈম একজন এনজিও কর্মী হিসেবে নবাবপুর গ্রামে কর্মরত আছেন। উক্ত গ্রাম পরিদর্শনকালে তিনি লক্ষ করলেন এখানকার অধিকাংশ শিশুই বিভিন্ন খনিজ লবণের অভাবজনিত সমস্যায় ভুগছে। তিনি এই অবস্থা উত্তরণের জন্য উক্ত গ্রামের মায়েদের জন্য ‘শিশুর স্বাস্থ্য ও খনিজ লবণ’ শীর্ষক একটি আলোচনা সভার আয়োজন করেন।

ক. কোষে পুষ্টি উপাদান পরিবহনে সাহায্য করে কোনটি?
খ. লৌহকে লেশ মৌল বলা হয় কেন?
গ. নাঈম যে উদ্দেশ্যে আলোচনা সভাটির আয়োজন করেছেন তা ব্যাখ্যা করো।
ঘ. নবাবপুর গ্রামের শিশুরা কী কী সমস্যায় ভুগছে তা বিশ্লেষণ করো।


►► ১ম অধ্যায়: সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর
►► ২য় অধ্যায়: সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর
►► ৩য় অধ্যায়: সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর
►► ৪র্থ অধ্যায়: সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর
►► ৫ম অধ্যায়: সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর
►► ৬ষ্ঠ অধ্যায়: সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর
►► ৭ম অধ্যায়: সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর
►► ৮ম অধ্যায়: সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর
►► ৯ম অধ্যায়: সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর
►► ১০ম অধ্যায়: সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর


শিক্ষার্থীরা অন্যান্য বিষয়ের নোট ও সাজেশান্স পেতে এখানে ক্লিক করো। নতুন সাজেশন পেতে জয়েন করো HSC Candidates, Bangladesh ফেসবুক গ্রুপে। আমরা আছি ইউটিউবেও। আমাদের YouTube চ্যানেলটি SUBSCRIBE করতে পারো এই লিংক থেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *