Adsense Ad Placements: কোথায় Ad বসাবেন, কোথায় বসাবেন না?

আপনার ওয়েবসাইটটি যদি এ্যাডসেন্স এ্যাপ্রুভড থাকে, তাহলে আপনি এ্যাডসেন্সের এ্যাড ইউনিটের পূর্ণ সুবিধা পাবেন। গুগল এ্যাডসেন্স এ্যাড ইউনিট আপনাকে পূর্ণ স্বাধীনতা দেয় আপনার ওয়েবসাইটে যেকোন ধরনের বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের। কিন্তু গুগল Adsense এর Ad placement policy অনুযায়ী আপনি অবশ্যই এ্যাড ইউনিট ব্যবহারে স্বাধীনতার অপব্যবহার করতে পারবেন না।

এই বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ, অনেক নতুন পাবলিশাররাই এই ভুলটি করে থাকেন। যার ফলে এ্যাডসেন্সের মাধ্যমে তাদের আয় অনেকাংশেই কমে যায়। শুধু তাই নয়, এ্যাড ইউনিটের যথেচ্ছ ব্যবহার আপনার ওয়েবসাইটের মনিটাইজেশন বাতিল এমনকি এ্যাডসেন্স এ্যাকাউন্টকে ডিজেবল হওয়ার দিকে ঠেলে দেয়।


►► আরো দেখুন: গুগল এ্যাডসেন্স কত প্রকার?
►► আরো দেখুন: গুগল এ্যাডসেন্স কেন এ্যাপ্রুভ হয় না? কারণটা কি?
►► আরো দেখুন: এ্যাডসেন্সে এ্যাড লিমিট কেন হয়? জানা আছে কি?
►► আরো দেখুন: এ্যাডসেন্স এ্যাড ইউনিট: সর্বোচ্চ কয়টি এ্যাড ইউনিট বসাতে পারবেন?
►► আরো দেখুন: গুগল এ্যাডসেন্স নিয়ে কমন কিছু প্রশ্ন ও উত্তর
►► আরো দেখুন: Adsense Ad Placements: কোথায় Ad বসাবেন, কোথায় বসাবেন না?
►► আরো দেখুন: সেরা ১০ টি এ্যাড নেটওয়ার্ক : এ্যাডসেন্সসহ আরো অনেক


যদিও Google Adsense ছোট-বড় প্রায় সব পাবলিশারদেরই এ্যাড প্রদর্শনের মাধ্যমে উপার্জনের সুযোগ দেয়। কিন্তু আপনার কেমন ইনকাম হবে তা অনেকটা নির্ভর করে ad placement এর ওপর। তাই আজ আমরা এ্যাডসেন্সের ad placement নিয়ে আলোচনা করবো। এর ফলে আপনি জানতে পারবেন, কোথায় কোথায় এ্যাড বসালে তা আপনার ওয়েবসাইটের জন্য ক্ষতিকর। পাশাপাশি কোথায় এ্যাড বসালে আপনার রিভিনিউ আগের তুলনায় বৃদ্ধি পাবে।

Encouraging accidental clicks

প্রথমত আপনার ওয়েবসাইটের যেখানেই এ্যাড বসান না কেন, কখনোই ভিজিটরদের এ্যাডে ক্লিক করার জন্য উৎসাহ দেয়া যাবে না। আপনি হয়তো কাউকে বলে দিলেন, “আমার ওয়েবসাইট ভিজিট করে বিজ্ঞাপনগুলোতে ক্লিক করো।” অথবা আপনার প্রকাশিত কোন কনটেন্টের মাধ্যমে ভিজিটরদের বিজ্ঞাপনে ক্লিক করার নির্দেশনা দিলেন। কোন অবস্থাতেই এমনটি করা যাবে না। মনে রাখুন, গুগল চায় আপনার প্রতিটি বিজ্ঞাপনে প্রাকৃতিকভাবে (Naturally) ক্লিক পড়ুক।

সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে যে, কোন উপায়েই একজন পাবলিশারকে ভিজিটরদের এ্যাডে ক্লিক করতে উৎসাহ দেয়াকে গুগল অনুমোদন দেয় না। তাই আপনার কনটেন্টের কোন লিংক, প্লে বাটন বা ডাউনলোড বাটন যাতে ভিজিটরদের ক্লিক করা প্রয়োজন, তার পাশে কখনোই এ্যাড ইউনিট বসাবেন না। এর ফলে একজন ভিজিটর ভুলবশত হলেও যদি এ্যাডে ক্লিক করে, তা আপনার এ্যাডসেন্স এ্যাকাউন্টের জন্য বিপজ্জনক।

Unnatural attention to ads

আপনার ওয়েবসাইটের বিজ্ঞাপনের প্রতি ভিজিটরদের অস্বাভাবিক মনোযোগ আকর্ষণ করা যাবে না। যেমন, এ্যাডে যেন ক্লিক পরে তাই আপনি এ্যাডের আশেপাশে এমন কোন এ্যানিমেশন তৈরি করলেন যা একজন ভিজিটরের দৃষ্টি আকর্ষণ করে এবং এর ফলে তিনি এ্যাডে ক্লিক করেন। আবার এ্যাডের প্রতি দিক নির্দেশ করে এমন কোন তীর চিহ্ন বা অন্যান্য প্রতীক বসানো যাবে না, যা পরোক্ষভাবে একজন ইউজারকে বিজ্ঞাপনের দিকে ঠেলে দেয়।

Placing ads under a misleading header

অবশ্যই আপনার ওয়েবাসাইটে প্রকাশিত কোন কনটেন্টের মাধ্যমে ভিজিটরদের misleading বা বিভ্রান্ত করা যাবে না। এরকম বৈশিষ্টের কোন কনটেন্টের শিরোনামের নিচে এ্যাড বসানো যাবে না। পাশাপাশি এমন কোন ভাষা একজন পাবলিশার তার কনটেন্টে ব্যবহার করতে পারবে না, যা সরাসরি ব্যবহারকারীকে বিজ্ঞাপনে ক্লিক করতে উৎসাহিত করে। যেমন:

  • Feel free to click an ad.
  • Contribute to the cause by clicking an ad.
  • Help keep this site running. Check out our sponsors!
  • We need a new server. Support us!

আপনি কোন অবস্থাতেই এ্যাডে ক্লিক করার এ সকল দিকনির্দেশনা লিখতে পারবেন না এবং তার আশেপাশে এ্যাড ইউনিট বসাতে পারবেন না। গুগলের Ad placement policy তে এটি খুবই গুরুত্বের সাথে বলা হয়েছে।

Aligning images with ads

আপনার ওয়েবসাইটের কোন ইমেজের কাছে এ্যাড প্লেসমেন্ট না করা বাঞ্চনীয়। এর ফলে অনেকগুলো ইমেজের মধ্যে এ্যাডের ইমেজটিকেও সাধারণ একটি ইমেজ মনে করার সম্ভাবনা থাকে। ফলে অসতর্কভাবে একটি ক্লিক পরে যায় বিজ্ঞাপনের ওপর।

Formatting content to mimic ads

আপনি কোন অবস্থাতেই মূল বিজ্ঞাপনের সাথে মিল রেখে আপনার কনটেন্টের ডিজাইন করতে পারবেন না। পাশাপাশি কনটেন্ট এবং বিজ্ঞাপনকে এমনভাবে ফরমেট করতে পারবেন না, যাতে করে কোনটি বিজ্ঞাপন এবং কোনটি মূল কনটেন্ট তার মধ্যে পার্থক্য করা না যায়। যদিও গুগল খুব সম্প্রতি এ্যাড ইউনিটের মধ্যে ন্যাটিভ এ্যাডস (Native Ads) পদ্ধতি সংযুক্ত করেছে, যার মাধ্যমে এধরনের বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করা যায়। তবে সেটি একান্তই গুগলের বিষয়। তাই নিজ থেকে কখনোই এ্যাড এবং কনটেন্টের মধ্যে সামঞ্জস্য রাখবেন না।

Offering compensation

বিজ্ঞাপনে ক্লিক করার জন্য কাউকে প্রলোভন দেখানো যাবে না। আপনি হয়তো বলে দিলেন, “ফাইলটি ডাউনলোড করার পূর্বে নিচের এ্যাডে ক্লিক করুন। ” অথবা বিজ্ঞাপনে ক্লিক করার জন্য ভিজিটরদের সরাসরি অর্থ দেয়ার প্রলোভন দেখালেন। এমনটি কঠোরভাবে নিষিদ্ধ।

Distance between ads and flash games

যেসব ওয়েবসাইটে গেম খেলার ব্যবস্থা রয়েছে, সে সকল ওয়েবসাইটে মূল গেম থেকে নিরাপদ দূরত্বে এ্যাড বসানো উচিত। এর কারণ হচ্ছে, যখন কোন ব্যবহারকারী গেমের উপর মনোযোগ দেন তখন এলোপাথাড়ি এদিক-ওদিক ক্লিক করতে থাকেন। ফলে ভুলবশত ক্লিক হয়ে যায়। এর ফলে বিজ্ঞাপনেও ক্লিক পড়ার সম্ভাবনা থাকে। গুগলের পক্ষ থেকে সাধারণত গেম থেকে ১৫০ পিক্সেল দূরত্বে এ্যাড বসানোর কথা বলা হয়েছে। তবে কিছু কিছু গেমের বৈশিষ্ট্য অনুযায়ী আরো কম-বেশি দূরত্বের প্রয়োজন হতে পারে।

Ads on thank you, exit, log in, or error pages

আপনার ওয়েবসাইটের এমন পেজ যেখানে প্রধানত কনটেন্ট থাকে না, সেখানে এ্যাড প্রদর্শন করানো যাবে না। এধরনের কিছু পেজের উদারহরণ হচ্ছে: thank you, exit, log in, 404 অথবা error পেজ। এই পেজগুলো পাঠকরা খুব একটা ভিজিট করে না। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে কেউ কেউ সাইটে কিছু কেনা বা ডাউনলোড করার মতো একটি নির্দিষ্ট কাজ করার পরে এগুলো দেখে থাকে।

আপনি যদি এসকল পেজে মূল বিষয়ের থেকে বিজ্ঞাপনের প্রতি বেশি ফোকাস করেন, তাহলে তা একজন ভিজিটরকে বিভ্রান্ত করে। কখনো কখনো ভিজিটর ভেবে নেয় যে, বিজ্ঞাপনগুলোই হচ্ছে আসল কন্টেন্ট। তাই এই ধরনের পেজে বিজ্ঞাপন রাখা উচিত না।

Ads on no content page

এমন কোন পেজ যেখানে কোন কনটেন্ট নেই, তাতে এ্যাড প্রদর্শন করা উচিত না। মনে করুন আপনার ওয়েবসাইটের এমন একটি পেজ যেখানে একজন ভিজিটর প্রবেশ করে শুধুমাত্র বিজ্ঞাপনই দেখতে পেল, কোন কনটেন্ট পেল না। অবশ্যই বিজ্ঞাপন এবং কনটেন্টের মধ্যে একটি ভারসাম্য রাখতে হবে। কনটেন্ট নেই এমন পেজে বিজ্ঞাপন তো নয়ই, বরং অল্প পরিমাণে কনটেন্ট রয়েছে এমন পেজেও মাত্রাতিরিক্ত এ্যাড প্রদর্শন ক্ষতিকর।

গুগল এ্যাডসেন্সের প্রধান Ad placement policy সম্পর্কিত ইস্যুগুলো সম্পর্কে আপনি পর্যাপ্ত ধারণা পেলেন। এগুলোর বাইরেও আরো কিছু বিষয় গুরুত্বের সাথে মেনে চলতে হবে।

  • AdSense এ্যাড কোড এমনভাবে কোথাও দেয়া যাবে না, যাতে করে মূল কনটেন্ট ঢাকা পরে যায়। অথবা মূল কনটেন্টে এ্যাড ঢাকা পরে যায়।
  • এমনভাবে এ্যাড বসানো যাবে না, যাতে মূল কনটেন্টের সাথে এ্যাড মিশে একাকার হয়ে যায়।
  • কোন প্রকার গোপন keywordsবা IFRAMEs দ্বারা এ্যাড এমবেড করা যাবে না।
  • কোন প্রযুক্তি ব্যবহার করে গুগল প্রদত্ত এ্যাড ইমেইল বা সফটওয়্যারের মাধ্যমে বিতরণ করা যাবে না।
  • গুগল এ্যাডের লিংক (new window) নতুন উইন্ডোতে ওপেন করা যাবে না। যদিও ডিফল্টভাবে এটা করা যায় না। কিন্তু কোন প্রযুক্তির সাহায্য নিয়ে এটির পরিবর্তন করা যাবে না।
  • Menu অথবা Drop down menus এর নিচে এ্যাড ব্যবহার এড়িয়ে চলুন।

শেষ কথা

এ্যাড ইউনিট ব্যবহার করে আপনি যতখুশি এ্যাড শো করাতে পারলেও এই স্বাধীনতার অপব্যবহার করবেন না। তারচেয়ে ওয়েবসাইটের কোথায় বিজ্ঞাপন বসালে সেটি বেশি কার্যকরী তা খুঁজে বের করার চেষ্টা করুন। এ্যাডসেন্সে সর্বোচ্চ কয়টি এ্যাড ইউনিট বসাতে পারবেন? তা ভালো করে জানুন। ওয়েবসাইটের লে-আউট বা ডিজাইন অনুযায়ী সীমিত পরিমাণে বিজ্ঞাপন ব্যবহার করুন। অধিকাংশ ক্ষেত্রে কম এ্যাড ইউনিট বেশি এ্যাড ইউনিটের থেকেও ভালো পারফর্ম করে।


►► আরো দেখুন: গুগল এ্যাডসেন্স কত প্রকার?
►► আরো দেখুন: গুগল এ্যাডসেন্স কেন এ্যাপ্রুভ হয় না? কারণটা কি?
►► আরো দেখুন: এ্যাডসেন্সে এ্যাড লিমিট কেন হয়? জানা আছে কি?
►► আরো দেখুন: এ্যাডসেন্স এ্যাড ইউনিট: সর্বোচ্চ কয়টি এ্যাড ইউনিট বসাতে পারবেন?
►► আরো দেখুন: গুগল এ্যাডসেন্স নিয়ে কমন কিছু প্রশ্ন ও উত্তর
►► আরো দেখুন: Adsense Ad Placements: কোথায় Ad বসাবেন, কোথায় বসাবেন না?
►► আরো দেখুন: সেরা ১০ টি এ্যাড নেটওয়ার্ক : এ্যাডসেন্সসহ আরো অনেক


আমরা আছি ইউটিউবেও। গুগল এ্যাডসেন্সের ওপর বাংলায় টিউটোরিয়াল ও আপডেট পেতে আমাদের YouTube চ্যানেলটি Subscribe করতে পারেন এই লিংক থেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *