Google My Business : চলুন গুগলে দেখাই নিজের তথ্য

কখনো কি গুগলে আপনার প্রিয় প্রতিষ্ঠানটির নাম লিখে সার্চ করেছেন? দেখছেন কি কখনো গুগল আপনার প্রতিষ্ঠানটি সম্পর্কে কি কি তথ্য প্রদর্শন করে? মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস বলেছেন, “If your business is not on the internet, then your business will be out of business.” — অর্থাৎ, আপনার ব্যবসার যদি ইন্টারনেটে না থাকে, তাহলে আপনার ব্যবসা সকল ব্যবসায়ী কর্মকাণ্ড থেকে বাহির হয়ে যাবে।

বর্তমান সময়ে ইন্টারনেট দুনিয়ায় একচ্ছত্র অধিপত্য বিস্তার করে চলেছে গুগল। আর গুগলেই যদি আপনার প্রতিষ্ঠানটি না দেখা যায় তাহলে তো মানুষ আপনার ব্যবসায়ী কর্মকাণ্ড সম্পর্কে জানবেই না। কারণ, এখন মানুষ কোন একটি সেবা নেয়ার আগে অন্তত একবার হলেও সেই সম্পর্কে গুগলে সার্চ করে নেয়।

একটি প্রতিষ্ঠানের অনলাইন অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার জন্য যেমন একটি ওয়েবসাইট তৈরি খুবই জরুরি, তেমনি Google My Business বা GMB এর মাধ্যমে সেটিকে গুগলের ফার্স্ট পেজে প্রদর্শন করাটাও অত্যাবশকীয় কাজ। তাহলে চলুন জেনে নেই Google My Business সম্পর্কে বিস্তারিত।

Google My Business কি?

গুগল মাই বিজনেস লোকাল বিজনেস এবং Local SEO এর একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। যেহেতু এখন সর্বক্ষেত্রেই তথ্য ও প্রযুক্তির ছোঁয়া লাগছে, ব্যবসায়ী কর্মকাণ্ডও কিন্তু এর বাইরে নয়। আর এজন্য বর্তমান সময়ে যে কোন ব্যবসা ডিজিটাল প্লাটফর্ম ছাড়া চিন্তা করা অসম্ভব।

Google My Business হচ্ছে গুগলের এমন একটি সার্ভিস যার মাধ্যমে আপনার বিজনেস বা প্রতিষ্ঠান বা সংস্থার অনলাইন উপস্থিতি নিশ্চিত করা যায়। এর ফলে কেউ যদি আপনার বিজনেস কিংবা ওয়েবসাইটের নাম লিখে গুগলে সার্চ করে, তাহলে গুগল সার্চ রেজাল্ট পেজে এবং গুগল ম্যাপে তা সহজে খুঁজে পাওয়া যায়।

আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের যদি ফিজিকাল কোন লোকেশন থাকে, তাহলে গুগল ম্যাপের মাধ্যমে আপনার ঠিকানা খুব সহজেই খুঁজে পাওয়া সম্ভব হয়। কোন বিজনেসের নাম লিখে গুগলে সার্চ করলে কম্পিউটারে উইকিপিডিয়ার মতো ডান পাশে এবং মোবাইলে উপরের দিকে একটা বক্সের মধ্যে আপনার লোকেশন, ছবি, ঠিকানা এবং ফোন নম্বরসহ বিভিন্ন তথ্য দেখা যায়।

গুগলে আপনি কি কি দেখাতে পারেন?

আপনি যখন Google My Business এ আপনার প্রতিষ্ঠানের জন্য একটি প্রফাইল তৈরি করবেন, তখন গুগল থেকে আপনার ইনফো বক্স তৈরি হয়ে যাবে। উপরের চিত্রের ন্যায়ে এই ইনফো বক্সে আপনি আপনার ব্যবসা, সেবা বা প্রাতিষ্ঠানিক বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রদশ করাতে পারবেন। তবে ব্যবসার ভিন্নতা অনুযায়ী তথ্যগুলোরও পরিবর্তন হয়ে থাকে। সাধারণত নিচের তথ্যগুলো সবসময় এ অংশে দেখা যায়:

  • ব্যবসার নাম
  • ব্যবসার শ্রেণী বা ক্যাটাগরি
  • ম্যাপ – বিজনেস লোকেশন
  • ব্যবসার ঠিকানা
  • ব্যবসার সময়বিন্যাস
  • ফোন নম্বর
  • ওয়েবসাইটের ঠিকানা
  • কল অপশন – মোবাইলের জন্য

এছাড়াও কভার ফটো, লোগো, ওয়ার্কিং ফটো, টিম, বিজনেস সংক্রান্ত যে কোন ফটো আপনি গুগলের ফার্স্ট পেজে দেখাতে পারবেন। পাশাপাশি বিজনেস রিলেটেড ভিডিও, প্রশ্ন এবং উত্তর সেশন কাস্টোমারদের রিভিউ এবং রেটিং পয়েন্ট আপনি এখানে প্রদর্শন করাতে পারবেন।

ফেসবুকের মতো Google My Business এও স্ট্যাটাস দেয়ার পদ্ধতি রয়েছে। আপনার ব্যবসা সংক্রান্ত যেকোন বিষয় আপনি এখানে পোস্ট করতে পারবেন। নতুন সার্ভিস বা প্রোডাক্ট সম্পর্কে আর্টিকেল লিখে আপনি আপনার কাস্টোমারদের কাছে বিজ্ঞাপন পৌঁছে দিতে পারবেন। নতুন কোন অফার আসলে সেটিও পোস্টের মাধ্যমে কাস্টোমারদের জানাতে পারবেন। এছাড়াও বিশেষ কোন কারণে যদি আপনার প্রতিষ্ঠান সাময়িক অথবা স্থায়ী কারণে বন্ধ থাকে, তাও Google My Business এর ইনফো বক্সে দেখানো সম্ভব।

Google My Business কেন প্রয়োজন?

অধিকাংশ ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীরা লোকাল কাস্টমারদের উপর নির্ভর করে তাদের ব্যবসায়ী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে। আর এর ফলে তারা কখনোই এই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি অস্বীকার করতে পারে না। তাহলে চলুন জেনে নেই Google My Business আপনার ব্যবসার জন্য কেন প্রয়োজন।

১. আগেই উল্লেখ করেছি, এখন মানুষ কোন একটি সেবা নেয়ার আগে অন্তত একবার হলেও সেই সম্পর্কে গুগলে সার্চ করে নেয়। আর এই পরিমাণ অন্তত ৮০ শতাংশ। প্রায় ৮০ শতাংশ মানুষ লোকাল বিজনেস সম্পর্কে জানার জন্য গুগলে সার্চ করে।

২. শুধু সার্চই নয়, যারা সার্চ করেন তাদের মধ্যে প্রায় ৩০/৫০ শতাংশ মানুষ বিজনেস লোকেশনটি ভিজিট করে।

৩. এমনকি যারা লোকাল বিজনেস সম্পর্কে গুগলে সার্চ করে তাদের মধ্যে অধিকাংশ মানুষ প্রোডাক্ট বা সার্ভিস ক্রয় করে।
কোর্সটিকায় আমরা উপরের ভিডিওর মাধ্যমে GMB প্রোফাইল তৈরির বিস্তারিত প্রক্রিয়া দেখিয়েছি। আশা করি ভিডিওটি দেখে আপনিও আপনার প্রতিষ্ঠানের জন্য এমন একটি প্রোফাইল তৈরি করতে সক্ষম হবেন।

সবশেষে বলা যায় একটি গুগল মাই বিজনেস প্রোফাইলের মাধ্যমে আপনার সেবাটি আরো বেশি প্রফেশনাল হবে এবং সেবা সম্পর্কে মানুষের মনে আস্থা জন্মাবে। এর ফলে কেউ যদি আপনার সেবাটি লিখে গুগলে সার্চ করে, তাহলে প্রথম পেজেই আপনার দেয়া তথ্যগুলো দেখতে পারবে।

কোর্সটিকায় আমরা উপরের ভিডিওর মাধ্যমে GMB প্রোফাইল তৈরির বিস্তারিত প্রক্রিয়া দেখিয়েছি। আশা করি ভিডিওটি দেখে আপনিও আপনার প্রতিষ্ঠানের জন্য এমন একটি প্রোফাইল তৈরি করতে সক্ষম হবেন। এরপরেও যদি কোন সমস্যা থাকে, তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করুন, অথবা আমার সাথে যোগাযোগ করুন। আমি আপনাকে এ বিষয়ে সাহায্য করার জন্য প্রস্তুত।

আমাদের ফেসবুক গ্রুপে জয়েন করে নিয়মিত আমাদের টিপস সম্পর্কে আপডেট থাকুন। আমরা আছি ইউটিউবেও। ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন এই লিংক থেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *